দেশের বই ঈদ সাময়িকী

সুমন সাহা’র গুচ্ছ কবিতা

শুক্রবার, ২১ মে ২০২১ | ৯:০৫ অপরাহ্ণ | 141 বার

সুমন সাহা’র গুচ্ছ কবিতা

সুমন সাহা’র গুচ্ছ কবিতা


 

মনখারাপ

প্রেমিকার বিয়ের পরের দিন সন্ধ্যার মনখারাপ।

ভাবনার নূপুর গড়িয়ে যায় নদীতে,
ডুবসাঁতার মুগ্ধতা দেখাও।
কবিতা বসে থাকতে বলে বেড়াতে যায়, আলস্য
বসতে গিয়ে ঘুমায়- ঘুম থেকে জেগে দেখে
কপালে সিঁদুর, লাল রক্তজবা তোমার পড়শি!

 

হাসিমুখ ও ছুরি

হাসিমুখ ছুরিটাকে যেভাবে ইচ্ছে সেভাবেই ঘুরালো শ্যামলা ঘাড়- প্রেম, আপনি যাদের দেখে রাখার দায়িত্বে আছেন, দেখে রাইখেন!

সরু চেইন পরা শ্যামলা হাসিমুখ মেয়েটি বাসা অবধি চলে গেল- রাফখাতার শেষ পৃষ্ঠা কিছুটা জানালো- অবশিষ্ট

চলে যাচ্ছে বিকেল,
সন্ধ্যা জানালার পাশে অল্পসময় দাঁড়াও;
দেখেই চলে যাব!

 

রাঁধুনি ও আনন্দ বিষয়ক যাপন

পরিপক্ক হাত পরিকল্পনার কাছে
জানতে চায়,
আগামাথা না-বুঝতে চাওয়ার বোকামি!

ফলাফল বলল-
আমার বাগান। সাকুল্যে নিজের,
সাফল্য না-আসলেও
আনন্দ নিয়ে
বাড়ি ফিরে যাব রাঁধুনি!

 

কবুতর ছোঁয়ার প্রক্কালে এলোমেলো ঘুঘু!

অস্থিরতা হাসছে। মুখ দেখাও আড়াল।
তোমাদের
দেড়তলা বাসার ছাদ-
বিকেলের চেনাজানা।

সেখানে- যেখানে কবুতর ঢাকা থাকে
সবুজ ওড়নায়! মন উড়াল দেবার ঘটনা ঘটায়।

জায়গা খুঁজে,
সেখান থেকো নেমো
বিকেল খুলে পড়তে বসতে- ঘুঘুও রাজি!

 

বিয়ের রাত্রি, শীতকাল

আরাধ্য শীতকাল গরম পোশাক বিছিয়ে ঘুমাচ্ছে; ঝিমাচ্ছে কচুরিফুল, দূর থেকে দেখা- ১টা হ্যাজাক বাতি আর ১টা আলো পাশে বসে আছে সেজেগুজে।

‘তুমি আমার; তুমি আমার’ বলে একদল কুয়াশা মফস্বল শহরের দিকে ঢুকে যাচ্ছে! যাক…

‘ভালো থেকো, সুখে থেকো’ শিরোনামের গল্প লিখতে গিয়ে বিয়ের রাত্রি… ‘সে নেই- সে নেই’ বলে সানাই বাজিয়ে যাচ্ছে!

Facebook Comments Box