মুজিববর্ষ প্রয়াসে সৃজিত নান্দনিক কাগজ ‘বর্ণিল’

সোমবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২১ | ৫:৫৩ অপরাহ্ণ | 320 বার

মুজিববর্ষ প্রয়াসে সৃজিত নান্দনিক কাগজ ‘বর্ণিল’

বিশ শতকের গোড়ার দিকে সবচেয়ে নাম করা লিটলম্যাগ প্রকাশিত হতো শিকাগো শহরে। লিটলম্যাগের নাম ছিল ‘Poetry : A Magazine Of Verse’ ( 1912)। পত্রিকাটি সম্পাদনা করতেন কবি হেরিয়েট মনরো এবং এজরা পাউন্ড। আমাদের দেশেও ইতোমধ্যে কেউ কেউ লিটলম্যাগ প্রকাশনায় স্বমহিমায় ভাস্বর।

সম্প্রতি হাতে এলো কবি শাহমুব জুয়েল সম্পাদিত ‘বর্ণিল’ বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকী সংখ্যা। পত্রিকাটির সূচি বিন্যাসে রয়েছে পাঠসূত্রের রসস্বাদন। পাঁচটি গবেষণা প্রবন্ধ : ‘মুজিবের মৃত্যু কি সহজ কথা’ কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন; ‘বঙ্গবন্ধু ও পাকিস্তানের রাজনীতিকে অর্থনীতির ধারায় ফেরানো’ স্বদেশ রায়; ‘শিশুশিক্ষায় শিল্প-সাহিত্য-সংগীত’ সরকার আবদুল মান্নান; ‘কলকাতার আত্মজ শেখ মুজিবুর রহমান ‘অমিত গোস্বামী; ‘বাঙালি চেতনার বাতিঘর’ পীযূষকান্তি বড়ুয়া।

সমগ্র প্রবন্ধে উঠে এসেছে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কিত শতবর্ষী ইতিহাস অধ্যায়। সূচিক্রম চলচ্চিত্র বাতায়নে লিখেছেন মানবেন্দ্রনাথ সাহা ‘বাংলা ছবির চিত্রনাট্য’ তথ্য সমৃদ্ধ প্রবন্ধ। ইতিহাস ও ঐতিহ্য পৃষ্ঠায় মুদ্রিত হয়েছে ড. শামস্ আলদীন ‘১৭ এপ্রিল ইতিহাস ও অর্জন’, শাহীন চৌধুরী ডলি ‘বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন’, করীম রেজা ‘বঙ্গবন্ধু এবং জয়বাংলা’, ইমাম মেহেদী ‘বঙ্গবন্ধুর যত অলংকার’, ফখরুল হাসান ‘কিংবদন্তিদের চোখে বিশ্বনেতা বঙ্গবন্ধু’, মানিক বৈরাগী ‘শ্রুতিতে বামধারা একাত্তর : প্রেক্ষিত কক্সবাজার’, শাহমুব জুয়েল ‘তারুণ্যে : বঙ্গবন্ধুর প্রভাব’ লেখাগুলো সামগ্রিক বিবেচনায় ইতিহাস আশ্রিত ঐতিহ্যের সুবর্ণ প্রয়াস।

গবেষণা দ্বিতীয় ভাগ সূচিতে প্রবন্ধ লিখেছেন তছলিম হোসেন হাওলাদার ‘আমি বিজয় দেখেছি’, প্রকৌ. মো. দেলোয়ার হোসেন ‘বঙ্গবন্ধুর প্রত্যাশার বাংলাদেশ’, পিয়াস মজিদ ‘মহাজীবনের কারাভাষ্য’, জাহাঙ্গীর হোসেন ‘রাজনীতির গতিধারায় বঙ্গবন্ধু’ সত্যসন্ধানী বঙ্গবন্ধুর অলিখিত ঘটনা প্রবাহ যা পাঠক মাত্রই পড়তে চাইবেন নিমিষেই। চারপৃষ্ঠার অনুবাদ : লেখক আনোয়ার এ খান ‘বঙ্গবন্ধু : রাজনীতির কবি’ মূল প্রবন্ধ থেকে অনুবাদ করেছেন মোহাম্মদ সালাহউদ্দীন।

দুটি বই আলোচনা ‘শামস সাইদের ধানমন্ডি ৩২ নম্বর : মহাকাব্যিক ব্যাপ্তিতে বঙ্গবন্ধু বয়ান’ মিল্টন বিশ্বাস, ‘আবদুল গাফফার চৌধুরীর ‘বঙ্গবন্ধু আজ যদি বেঁচে থাকতেন’ বিশ্লেষণে-পর্যবেক্ষণে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ, মুহাম্মদ ফরিদ হাসান দুজনই লিখেছেন বইয়ের কোরাস। রয়েছে ইকবাল পারভেজ এবং গাফফার মাহমুদের গুচ্ছ কবিতা। আরও আছে দুই গল্পকারের গল্পঅন্তর্ভুক্তি তেরপৃষ্ঠা। ইসহাক খান ‘বড় মানুষ’, মনি হায়দার ‘কর্ণেল আসছেন’ গল্পসমগ্রে আছে ক্ষয়িষ্ণু জীবনবোধ, বুর্জোয়া ব্যুরোক্রাট শাসননীতি দুইয়ের উপাখ্যান।

কবিতা লিখেছেন বোরহানউদ্দিন খান জাহাঙ্গীর, নূহ-উল-আলম লেনিন, জাহাঙ্গীর আলম জাহান, মাহফুজ আল-হোসেন, লুৎফর চৌধুরী, নাজনীন হাবীব, দ্বীপ সরকার, তোফায়েল তোফাজ্জল, ফারুক সুমন, বঙ্গ রাখাল, বাপ্পি সাহা, বিটুল দেব, মিজান মনির, মীম মিজান, সাইয়্যিদ মঞ্জু, রুদ্র সাহাদাৎ, পার্থ মল্লিক, শারমীন সুলতানা রীনা ও আইরিন সুলতানা লিমা প্রমুখ। রয়েছে পুঁথি বিষয়ক কবিতা ‘বিজয়ের পতাকা’, লিখেছেন পুঁথিবিশারদ কবি জালাল খান ইউসুফী।

অফসেট কাগজে মুদ্রিত ৫২ জন লেখক সমৃদ্ধ করেছেন এ সংখ্যাটি। আল নোমানের মুক্তিযুদ্ধ চেতনার রঙিন প্রচ্ছদ এবং সাবিনা ইয়াসমিন সেতুর নামলিপি। ‘বর্ণিল’ এ সংখ্যার মূল্য : একশত পঞ্চাশ টাকা ।

মুজিববর্ষ ইতিহাস নির্ভর ‘বর্ণিল’ ও ইতিহাস সাক্ষী সুবর্ণ অধ্যায়ে। পত্রিকাটির সম্পাদকীয় শ্রুতিভাষ্য ‘চেতনার বাতিঘর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গকন্যা, অবিনাশী চেতনা এবং শ্রদ্ধাশীল শিল্পানুরাগীদের উদ্যোগ, গড়ে ওঠে আরেক বাংলাদেশ’ এ বাংলাদেশ সর্বধর্মাশ্রিত, অসাম্প্রদায়িক চেতনাউজ্জীবিত বাংলাদেশ। আমাদের দরকার বর্ণিলের মতো সুফলার বীজতলা গড়ে উঠুক আরেক ব-দ্বীপ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ।


  • দেশের বই পোর্টালে লেখা পাঠাবার ঠিকানা : desherboi@gmail.com
Facebook Comments Box