মহালোকে পাড়ি জমালেন বুদ্ধদেব গুহ

সোমবার, ৩০ আগস্ট ২০২১ | ৬:৪৮ অপরাহ্ণ | 141 বার

মহালোকে পাড়ি জমালেন বুদ্ধদেব গুহ

মহালোকে পাড়ি জমালেন ‘ঋজুদা’। ঋজুদা, ঋভু এই দুইটি কালজয়ী কিশোর চরিত্র সৃ্ষ্টি করার পর আর কোনো ছোটগল্প, উপন্যাস না লিখলেও তিনি বাংলা সাহিত্যে রাজপুত্র হয়ে থাকতেন। কিন্তু তাঁর সৃজনের অবিরাম ধারা তাঁকে দিয়ে লিখিয়ে নিয়েছে মাধুকরী, সবিনয় নিবেদন, হলুদ বসন্ত, কোজাগর, অববাহিকা, বাবলী’র মতো জনপ্রিয় উপন্যাস।

পেশায় চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট এবং সাহিত্যে পাঠকনন্দিত লেখক বুদ্ধদেব গুহ আজ ৩০ আগস্ট ২০২১ দক্ষিণ কলকাতার বেলভিউ হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। গত এপ্রিল মাসে কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হলে কিছুদিন একটি হোটেলে নিভৃতবাসে ছিলেন লেখক। পরে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় তাঁকে। দীর্ঘ ৩৩ দিন হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ শেষে ঘরে ফেরেন । এরপর দেখা দেয় করোনা পরবর্তী নানান জটিলতা। গত ৩১ জুলাই শ্বাসকষ্টসহ নানাবিধ সমস্যা নিয়ে পুনরায় হাসপাতালে ভর্তি হোন তিনি। কিন্তু ঘরে আর ফেরা হলো না এবার ।

লেখক বুদ্ধদেব গুহ জন্মেছিলেন ১৯৩৬ সালের ২৯ জুন। তার শৈশব-কৈশোরের অনেকটা সময় কেটেছে বাংলাদেশে। প্রকৃতি ও মানুষের সম্মিলিত সৌন্দর্যকে লেখায় ফুটিয়ে তোলার অপূর্ব গুণে তিনি পাঠকের কাছে বাংলা সাহিত্যের রাজপুত্র হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন। ১৯৩৩ সালে প্রকাশিত হয় প্রথম উপন্যাস জঙ্গল মহল । তাঁর লেখায় ছিল স্বপ্নালু বিমূর্ততা ও রোমান্টিক আবেদন। ১৯৭৭ সালে হলুদ বসন্ত উপন্যাসের জন্য লেখক বুদ্ধদেব গুহ আনন্দ পুরষ্কার লাভ করেন। তাঁর মৃত্যুতে বাংলা সাহিত্য হারালো রাজপুত্রকে, এ এক অপূরণীয় ক্ষতি।

Facebook Comments Box