বহুমাত্রিক আহমদ ছফার জন্মদিন আজ

মঙ্গলবার, ৩০ জুন ২০২০ | ৭:৪৮ অপরাহ্ণ | 162 বার

বহুমাত্রিক আহমদ ছফার জন্মদিন আজ

তরুণ সমাজে যারা বইপ্রেমী, তাদের প্রিয় লেখকের নামের তালিকায় আহমদ ছফা প্রথম সারিতে। এই সোজাসাপটা, কাউকে পরোয়া না করা, অসহায়ের না বলা কথা বলে যাওয়া মানুষটাকে তরুণ সমাজ রেখেছে তাদের মাথায় করে। আজকে এই প্রখ্যাত লেখকের জন্মদিন।
বাংলাসাহিত্যের ইতিহাসে অন্যতম প্রতিবাদী এবং প্রগতিশীল লেখক আহমদ ছফা। ১৯৪৩ সালের ৩০ জুন চট্টগ্রাম জেলার চন্দনাইশ উপজেলার গাছবাড়িয়া গ্রামের এক মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার পরিবার কৃষক হওয়াতেই নাকি তার অহংকার, এমন সাদামাটা চিন্তা করা প্রতিভাবান মানুষটাকে কে না ভালোবাসবে?

 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরা গর্ব করতে পারে এটা জেনে, আহমদ ছফা এই বিশ্ববিদ্যালয়েরই ছাত্র ছিল। পড়াশোনাচলাকালীন সুধাংশু বিমল দত্তের মাধ্যমে কৃষক সমিতি ন্যাপ বা তৎকালীন জনপ্রিয় গোপন কমিউনিস্ট পার্টির সাথে সক্রিয়ভাবে যুক্ত হন।
মাস্টারদা সূর্যসেনের বিপ্লবী কর্মকাণ্ড ব্যাপকভাবে অনুপ্রাণিত করে তাঁকে। কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে চট্টগ্রাম-দোহাজারী রেললাইন উপড়ে ফেলেন তিনি। পরবর্তীতে গ্রেপ্তার এড়াতে এবং পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে পার্বত্য চট্টগ্রামে কিছুদিন আত্মগোপন করেন।
এরপর ১৯৮৬ সালের দিকে এসে জার্মান ভাষার উপর গ্যেটে ইন্সটিটিউট থেকে ডিপ্লোমা ডিগ্রি লাভ করেন। গ্যেটের অমর সাহিত্য ‘ফাউস্ট’ অনুবাদের ক্ষেত্রে এটিই ছিল প্রথম সোপান।
ষাট দশকে সমসাময়িক লেখকদের থেকে একেবারেই আলাদা পথের যাত্রী হিসেবে সাহিত্যে পা রাখেন। ‘সূর্য তুমি সাথী’ নামে প্রথম উপন্যাস বের করেন। বাঙালি পাঠক বোধকরি প্রথম থেকেই বিচিত্র বিষয় নিয়ে রচিত সাহিত্য নিয়ে আগ্রহী ছিল, তাই ভিন্নরকম এই স্পষ্ট উপন্যাসটি জনপ্রিয় হতে বেশি সময় লাগেনি।
সেই থেকে সবার আপন হয়ে গেল ছফা, স্পষ্টবাদী একজন মানুষ হিসেবে। ১৯৭১ এর জুলাইয়ের দিকে দেশ যখন স্বাধীন হবে হবে ভাব, তখন বাংলাদেশের প্রথম গ্রন্থ হিসেবে প্রকাশিত হয় ছফার প্রবন্ধগ্রন্থ ‘জাগ্রত বাংলাদেশ’।

 

বহুমাত্রিক জীবনে তিনি বেশকিছু পুরষ্কার প্রত্যাখ্যান করেছেন। তার লেখা বই বিভিন্ন ভাষায় এখনও অনুবাদ হয়। ২০০১ সালের ২৮ জুলাই অসুস্থ অবস্থায় ঢাকা কমিউনিটি হাসপাতালে নেয়ার পথে মৃত্যুবরণ করেন ৫৮ বছর বয়সী ছফা।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে জানাজা শেষে মিরপুরের শহীদ বুদ্ধিজীবী গোরস্থানে দাফন করা হয় বাংলার কালজয়ী এই সাহিত্যিককে।

Facebook Comments