পতিতা-কাপুরুষ এবং তুমি

মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১ | ২:৩৯ অপরাহ্ণ | 79 বার

পতিতা-কাপুরুষ এবং তুমি

‘প্রতিদিনের কবিতা’ দেশের বই-এর নতুন আয়োজন। এই আয়োজনে প্রতিদিন তরুণ কবিদের একগুচ্ছ কবিতা প্রকাশ করা হয়। আজ প্রকাশিত হলো হুসাইন তামিমের কবিতা


 

কাপুরুষ

এত দিন- শত-সহস্র কত কথা বলেছি

তবুও যেন সম্পর্কস্থাপন
বক্য কভু বলতে পারিনি। যদি তোমার সাথে বলা সব কথা
লিপিবদ্ধ করি, তবে কয়েক হাজার বই তৈরি হয়ে যাবে।

কোন বইয়ের মধ্যে একটিও বাক্য নেই
আমি বলেছি যে, ‘আমি তোমায় ভালোবাসি’।

এর মানে কি? আমি তোমায় হৃদয় থেকে
ভালোবাসতে পারিনি? যদি পারতাম তবে নিশ্চয়
মুখফুটে বলার সাহস রাখতাম-
আমি মেনে নিতে রাজি আজ- আমি কাপুরুষ।

ইচ্ছা

কত পথ এক সাথে হেঁটেছি
যদি তা সরল রেখার হতো- তবে
সমগ্র পৃথিবীর অর্ধেকটা ঘুরে আসতে পেতাম।

এতো পথ চলার পরও
তোমার সাথে চলার ইচ্ছা থেকেই যাচ্ছে।
যেন- তুমিহীন নিঃস্ব আমি।

আমি তোমার চোখে তাকিয়ে

আমি তোমার চোখে তাকিয়ে,
ঠোঁটের কড়া নাড়িয়ে
বলতে পাব না কভু
হাজার বাছর তোমায় নিয়ে বেঁচে থাকব
সেটা সম্ভব নয়,
হাজার বছর বাঁচাবেন না প্রভু।

যতদিন-ক্ষণ বেঁরচ রইবো
তোমার চোখে চেয়ে,
প্রেমের অকুল সাগরে তরী বেয়ে;
মিথ্যা করে দেব শেক্সপিয়ারের উক্তি।

আমাদের প্রেমের পবিত্রতা আমাদের শক্তি
দারিদ্র্যতার হিংস্র বেড়াজাল ভেঙে চুরে,
হবে নতুন সূর্যোদয়
আমাদের প্রেম করবে বিশ্বজয়।

পতিতা

নবীন প্রবীণ দীনহীন ধনবান এসো বসো রাজপথে,
চেয়ে দেখ ধূসর ঘোর আন্ধার ভেঙে; দেখ চেয়ে বুক-
নরক চিতা জ্বলছে। শোক নেই তবু নিস্তেজ মুখ।
রক্তের দাগ উষ্ণ তাপে শুকিয়ে যাবে, শুধু পড়ে রবে,
কলঙ্কের দীপ্তমান রেখা। কে মুছবে এ রেখা কবে?

আমি তাদের কথা বলছি, যারা দুবেলা দুমুঠো অন্ন-
না পেয়ে আজ কলঙ্কের কালি মুখে মেখে সন্ধ্যা হলে
বেড়িয়ে পরছে রাজপথে। পৃথিবীর সচল কোলাহলে,
তোমরা তাদের কয়েক ঘণ্টা, কয়েক মুহূর্ত অভিসপ্ত
অনিচ্ছাকৃত ভালোবাসার হিংস্র বেড়াজালে তপ্ত-
করে রাখ। হে মানব, তুমি কি জানো? তোমার
পশুত্বকে কেনো নিরব নিস্তেজ ভাবে সয়ে যায় নারী,
তুমি জানো না। তুমি চেননা ঔ পতিতার আহাজারি।

যদি তুমি জানতে, যদি তুমি সত্যিকার অর্থে চিনতে,
তবে আমার এ সোনার দেশে পতিতালয় থাকত না,
থাকত না নিঝুম রাতে অন্নহীন নারীর কণ্ঠে কান্না।


দেশের বই পোর্টালে লেখা ও খবর পাঠাবার ঠিকানা : desherboi@gmail.com

 

Facebook Comments