ভাষাচিত্র ঈদ সাময়িকী

নাহিদ বেগম লাকী’র ‘প্রত্যাবর্তন’

শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১ | ১০:২৪ অপরাহ্ণ | 272 বার

নাহিদ বেগম লাকী’র ‘প্রত্যাবর্তন’

।। নাহিদ বেগম লাকী ।।


 

গতরাতে ভালো ঘুম হয়নি কাজলের! প্রচণ্ড ভ্যাপসা গরম! তার মধ্যে বিদ্যুৎ ছিল না। একটু মেঘ করে হাওয়া দিলেই অটো বন্ধ হয়ে যায় বিদ্যুৎ! মেজাজটা বিগড়ে টং হয়ে আছে! প্রায় বছর দেড়েকেরও বেশি সময় ধরে ঘরবন্দি থাকতে হচ্ছে! করোনার ভয়ে এই স্বেচ্ছা গৃহবন্দি হয়ে থাকা গা সওয়া হয়ে গেছে! তবুও মাঝেমধ্যে অদ্ভুত অস্থিরতা পেয়ে বসে। বিদ্রোহী হয়ে ওঠে শরীর মন! কয়েকদিনের জন্য দেশের বাড়ি থেকে ঘুরে এলে কেমন হয়? গ্রামে করোনার প্রাদুর্ভাব অতটা থাবা মেলেনি!
মনে মনে ঠিক করে ফেলল, আগামীকাল খুব ভোরেই রওনা হয়ে যাবে সে! শহর থেকে বাড়ি খুব একটা দূরে নয়। ঘণ্টাদুয়েকের পথ! ক্লান্ত দুপুর, শান্ত বিকেল আর মোহময় সন্ধ্যা! পাখিদের কোলাহল! নীরব নিশুতি রাত! ভাবতেই মন ভালো হয়ে যায়! মেজাজটাও শান্ত হয়ে আসে ধীরে ধীরে!
খুব ভোরে অটোতে রওনা দিয়ে দিলো সে! সেহরির পর আর ঘুম হয়নি। ছোট একটা ব্যাগে দু’একটা জামা-কাপড় গুছিয়ে নিলো। সকালের খোলা হাওয়ায় শরীর মন জুড়িয়ে গেল! খোলা আকাশ. খোলা বাতাস আর প্রকৃতি! ওহ্ কী অপার্থিব আনন্দ! ভালোলাগার অদ্ভুত অনুরণন!
ঘণ্টাদুয়েকের মধ্যেই পৌঁছে গেল সে! অবারিত ফসলের মাঠ! রাশি রাশি পাকা ধান! আহা চোখ জুড়িয়ে যায়! করোনা মানুষের স্বাভাবিকতা কেড়ে নিয়েছে! কর্মহীন, আবেগহীন করেছে সত্যি, আবার ফসল ওঠার আনন্দ গ্রামের সবাই কে একাত্ম করেছে, একাকার করে দিয়েছে! সেও তো নিরেট সত্যি!
নবান্নের উৎসব হবে না ঠিক! কিন্তু তার সৌরভ ছড়িয়ে পড়েছে সারা গ্রামময়! এক আকাশ ভালো লাগা নিয়ে বাড়ির পথে পা বাড়ালো কাজল! হঠাৎ পাকা ধানী জমিটার আইলে চোখ আটকে গেল তার! সোনালী রংয়ের শাড়িপরা বছর ষোল-সতেরোর এর এক কিশোরী! এলোচুল চোখ-মুখ ছাপিয়ে উড়ছে বাতাসে! থমকে দাঁড়ালো সে! আরে পৃথিবীতে এত সুন্দরও কেউ হয়?
কাজল ভুলে গেল তার সকল অতৃপ্তি আর অপ্রাপ্তির কথা! বারবার তার মনে হচ্ছে সে ঠিক জায়গাতেই এসেছে ; যেখানে সে আসতে চায়!

Facebook Comments Box