দিন শেষে জীবন এক পাপেট শো

বুধবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২১ | ২:৫২ অপরাহ্ণ | 206 বার

দিন শেষে জীবন এক পাপেট শো

প্রতিদিনের কবিতা’ দেশের বই-এর নতুন আয়োজন। এই আয়োজনে প্রতিদিন তরুণ কবিদের একগুচ্ছ কবিতা প্রকাশ করা হয়। আজ প্রকাশিত হলো অলোক আচার্য’র কবিতা


 

জীবন ও মায়া

পৃথিবীর সব পাখি উড়ে গেছে
উত্তরে,
জানিনা ফেরা হবে কিনা কোনোদিন আরি
বেলা শেষে নীড়ে।

অচেনা মায়ায় উড়ে যাবে বহুদূর
বসন্তে শোনা যাবে না ঝরাপাতার গান।

শীতের শেষ রাতও আজ বড় দীর্ঘায়িত।

ওরা উড়েছে জীবনের খোঁজে,
জীবন শেষেও কে পায় জীবনের খোঁজ?
দিন শেষে জীবন এক পাপেট শো।

যান্ত্রিক শহর

প্রতিদিন চাই প্রচুর বৃষ্টি হোক
ভাসিয়ে নিয়ে যাক সব,
বিষাক্ত ধূলিকণা যা জমা হয়েছিল- শহরের বুকে।

বিবর্ণ করেছে উল্লাসে মেতে থাকা
আমাদের শৈশব- কৈশর,
নির্জন-নিরপরাধ বিকেলগুলো
অসহ্য যন্ত্রণা বুকে পালিয়েছে- এ শহর ছেড়ে।

কৃত্রিম শ্বাস যন্ত্রে বেঁচে আছে মানুষ
অসংখ্য অমানুষের ভিড়ে।
শহরে চলা দোতলা বাসগুলো
পিষে দিয়ে গেছে আমাদের
অনুভূতি আজ খবরের কাগজে
শিরোনাম হয়ে ওঠে।

একদিন, এই নদীর বুকে

কতদিন ভেবেছি একদিন গাঙচিল হয়ে
ঢেউ তোলা নদীর বুকে
ছুঁয়ে যাব জলাধার- শিকারের খোঁজে
উড়ে যাব পানকৌড়ি হয়ে
ডুব দিয়ে গভীর মায়াজালে,
স্নিগ্ধ বাতাস গায়ে মেখে-
অতঃপর ফিরে আসি।

এই গুল্মের ঝোপ-মেটে শালিকের ছানা
বিকেলের শেষে মিঠে রোদ
মিশে যায় হঠাৎ-শ্যাওলার মতো ভেসে
গায়ে মাখা চিত্রার জল।

অভিযোগ

দিতে যদি হয় দিও
এক ফালি চাঁদ
সাথে থাকা জোৎস্নার কি অপরাধ?
নক্ষত্র ছোটার প্রতিযোগীতায়
আমিও একজন
সম্মুখ প্রান্তরে দাঁড়িয়ে
সে কোন প্রান্তজন?

মৃত তারাদের দলে ভিড়ে যাই
দলবদলের এই তো সুযোগ
সহসা কেউ প্রশ্ন করে
কি ছিল তোমার অনুযোগ?


  • দেশের বই পোর্টালে লেখা পাঠাবার ঠিকানা : desherboi@gmail.com
Facebook Comments Box