গোধূলির নীল কাব্য

বুধবার, ১৩ জানুয়ারি ২০২১ | ৬:৪২ অপরাহ্ণ | 118 বার

গোধূলির নীল কাব্য

অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২১- এ প্রকাশিত হতে যাচ্ছে তরুণ কবি তানজিমুল ইসলাম এর নতুন কবিতার বই ‘গোধূলির নীল কাব্য’। প্রকাশিতব্য বইয়ের পাণ্ডুলিপি থেকে প্রকাশ করা হলো কয়েকটি কবিতা।


চলছে যুবক অনন্ত

আশা-নিরাশা আর হতাশার চাদর গায়ে
জাপটে আছে অভিমানী যুবক!
মাসের পরে মাস চলে যায়
অভিমন্যু পথ চেয়ে অপেক্ষায় থাকে,
এই বুঝি উঠলো বেজে ফোনটা হঠাৎ;
হ্যালো অভিমন্যু,
ক্ষণিক বাদে সম্বিৎ ফিরে হতবাক যুবক!

ফোনের পরে ফোন আসে,
চেনা-অচেনা অনেক সুরে,
আসে না কেবল ঐ প্রত্যাশিত ডাক-
আহ্বানের সুরে…!

ভেতর থেকে প্রেরণা যোগায়
অচেনা মানুষ,
নিজের মনের মাঝে বাস করা
অন্য যুবক!

প্রত্যাশার চাদর গায়ে জড়িয়ে
চলছে যুবক-
অনন্ত পথ;
ফ্যালফ্যাল চেয়ে দ্যাখে জনতা
হতাশায় মগ্ন এক-
প্রেমিকের নির্বাক নিরুদ্দেশে ছুটে চলা…!

আমি শুধু প্রেম বুঝি কিন্তু প্রেয়সী…

ঐতিহাসিক সেদিনের ঐ মিলনমেলায়-
আঁড়চোখে তোমায় চেয়েছি যতবার,
লজ্জারাঙা হাসিতে লুকিয়েছো,
নিজেকে বারবার।

অবিরাম প্রাণপনে-
তবু অব্যাহত সে প্রচেষ্টা;
এবার চোখে চোখ পড়তেই
তুমি যেন কিংকর্তব্যবিমূঢ়!

নতুন করে নিজেকে লুকোনোর-
সে কি কৌশল!
মনোবীণায় জমিয়ে রাখা কল্পনায়-
যখন ভালোবেসে আলিঙ্গন করেছি,
নতজানু তুমি,
অজান্তেই কেঁপেছো থরথর!

প্রথম যেদিন ছুঁয়েছি,
তোমার সিক্ত উষ্ণ অধর,
তুমি কুটিকুটি হেসেছো,
সঙ্গোপনে।
লজ্জায় অবনত হয়েছো বৈকি!
অন্তরালে লুকিয়ে রাখা
তোমার প্রত্যাশা যেন,
আমায় আবেগাপ্লুত করেছে
নতুন করে।

অজান্তেই তৈরি হয়েছে,
এক নতুন উপন্যাস!
সারাজীবনে গল্প উপন্যাস
বরাবরই আমায় টানে;
আবার নতুন করে টানে,
যখন থেকে আমার তুমি।

প্রেমকে আমি বুঝি কিন্তু প্রেয়সী?
আমার কাছে দুর্বোধ্য,
বুঝতে বুঝতে সময় চলে গেল,
দিনের পরে দিন, বছরের পরে বছর,
এমনকি যুগের পরে যুগ!

তবুও আমি মনে-প্রাণে চাই,
তুমি প্রেয়সী হয়েই থেকো,
থেকো অমলিন,
আমার ঐকান্তিক প্রেয়সী।

স্নিগ্ধ গোধূলির জন্মদিনে

শুভ জন্মদিন।
শুভ হোক জীবনের সবক’টা দিন…
ভালো থেকো অমলিন!
বেশ তো,
অনেকদিন কৃপা করে হলেও-
তোমার কণ্ঠ শুনতে পেলাম।

আমি ধন্য!
আমার সব কষ্ট ম্লান হয়ে গিয়েছে!
আমি তোমায়
আর কখনোই বিরক্ত করবো না;

আজ আমার অনেক ভালো লাগছে!
‘গোধূলিবেলায় স্বপ্ন এলো সঙ্গোপনে,
দৈবক্রমেই হারিয়ে গেল দূর সীমানায়,
নিকষ কালো অন্ধকারে,
বিষণ্ন রাত্রির গহীন অরণ্যে… ’

আমার সাথে কথা বলতেই,
যত আপত্তি তোমার…!
সুযোগ পেলে ইনিয়ে-বিনিয়ে,
ভাব জমানোর সুযোগ খুঁজি।

বড্ড কষ্টে আছি,
তোমায় ছাড়া-
দিনগুলো যেন আর কাটে না।
আজ তোমার জন্মদিনে,
অনেক অনেক শুভকামনা।
আজকের মতোই,
প্রতিটি দিন শুভ হোক…!

মানবখেকো ‘করোনা’

মানবখেকো ‘করোনা’
আমরা প্রস্তুত আছি,
কখন তোমার মোহনীয় ছোয়ায়
গ্রাস করে নেয়,
সমস্ত শরীর-
নিস্তব্ধতার চাদরে আবৃত;
যেন ‘নীল বিষ’!

হাটে-মাঠে-ঘাটে,
দেশ-দেশান্তরে-
আতঙ্কিত করে জেগে উঠবে!
আমরা পুরো বিশ্ব আজ,
হুলিয়া জারি করেছি।

সমূলে তোমায় নিঃশেষ করবো,
চিরতরে বন্ধ হবে খেলা!
তুমি আর কত নিষ্ঠুর হবে,
করোনা?

দোহাই তোমার,
ফিরে যাও তুমি!
ফিরে যাও
তোমার নিজ ভূবনে!
যেখানে গ্রেনেড বোমাতেও ভীত নয়-
মানবজাতির মতো ভয়ঙ্কর স্কোয়াড…!
সেখানে খুব সহজেই তুমি আজ
‘বিশ্বত্রাস!’

‘করোনা’ তুমি চলে যাও,
চলে যাও তোমার নিজ গন্তব্যে!
অনেক হয়েছে,
এবার বন্ধ করো নির্মম খেলা-
‘করোনা’
ফিরে যাও চিরতরে,
তোমার নিজ ভূবনে!


  • দেশের বই পোর্টালে লেখা পাঠাবার ঠিকানা : desherboi@gmail.com
Facebook Comments Box