পাঁচটি প্রশ্ন

একমাত্র সৃজনশীল লেখাই দূর ভবিষ্যতের আলো দেখতে পায়

বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১ | ৪:২৯ অপরাহ্ণ | 311 বার

একমাত্র সৃজনশীল লেখাই দূর ভবিষ্যতের আলো দেখতে পায়

দেশের বইয়ের একটি নিয়মিত আয়োজন পাঁচটি প্রশ্ন। লেখক-প্রকাশকের কাছে বই প্রকাশনাসংশ্লিষ্ট অভিজ্ঞতা নিয়ে প্রশ্নগুলো করা। আজকের পাঁচটি প্রশ্ন আয়োজনে আমরা মুখোমুখি হয়েছি লেখক বনানী রায়-এর


 

প্রশ্ন ১। প্রথম বই প্রকাশের অভিজ্ঞতা জানতে চাই।
‘হৃৎকলম’কে আমি আমার নিজের ঘর মনে করি। সেই গ্রুপের প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান থেকে লেখক মাইনুল এইচ সিরাজী ভাই যখন বললেন আমি যদি বই প্রকাশ করতে চাই, হৃৎকলম প্রকাশনী হাত বাড়িয়ে দেবে। সিরাজী ভাইয়ের মতাে বিজ্ঞ, বিচক্ষণ ও ঋদ্ধ লেখক যখন মনে করলেন বই লেখার যোগ্যতা আমার আছে, আমার আত্মবিশ্বাস বেড়ে গেল। লিখলাম, “সুখোষ্ণ সমীর” নামে একটি উপন্যাস। প্রকাশ করল হৃৎকলম প্রকাশনী।

 

প্রশ্ন ২। লেখালেখির ইচ্ছেটা কেন হলো?
বাইরের জগতের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন হয়ে শুধুই সংসার নামক চক্রে ঘুরপাক খেতে খেতে এবং পরবর্তীতে মাকে হারিয়ে মনটাকে বড় ভারি মনে হল। মন হালকা করার জন্য লেখালেখির কোনো নিকট বিকল্প নেই। মনের তীব্র তাগিদ থেকেই শুরু করলাম লেখালেখি।

 

প্রশ্ন ৩। লেখক জীবনের মজার কোনো অভিজ্ঞতা জানতে চাই।
হতে চেয়েছিলাম কণ্ঠ শিল্পী, প্রতিভা সেদিকে ছিল বলেই জানতাম। হয়ে গেলাম লেখক। এটাই আমার কাছে সবচেয়ে বড় মজা।

 

প্রশ্ন ৪। বাংলাদেশের সৃজনশীল লেখালেখির ভবিষ্যৎ সম্পর্কে আপনার মতামত জানতে চাই।
সৃজনশীল না হলে সেটা কি ধরনের লেখা? প্রশ্নটা পরিষ্কার হলো না। আমি মনে করি, একমাত্র সৃজনশীল লেখাই দূর ভবিষ্যতের আলো দেখতে পায়, বাকি লেখা একটু এগিয়ে অন্ধকারে মুখ থুবড়ে পড়ে।

 

প্রশ্ন ৫। লেখালেখি নিয়ে আপনার ভবিষ্যৎ স্বপ্ন?
মনকে হালকা করার জন্য যে লেখার নেশায় আমি পড়েছি, সেই নেশায় মাতোয়ারা হয়ে থাকতে চাই। ভবিষ্যৎ নিজেই স্বপ্ন বুনে দেবে, আমাকে তার পেছনে দৌড়তে হবে না।

 

অনুলিখন : শামীমা ইসলাম


দেশের বই পোর্টালে লেখা ও খবর পাঠাবার ঠিকানা : desherboi@gmail.com

Facebook Comments Box